আজ(২৩শে জানুয়ারি) বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) চলতি আসরে অধিনায়ক মুশফিকের হাফসেঞ্চুরি ও মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের অসাধারণ ব্যাটিংয়ে রাজশাহী কিংসকে ৬ উইকেটে হারিয়েছে চিটাগাং ভাইকিংস।এর ফলে সপ্তম ম্যাচে ষষ্ঠ জয়ে ১২ পয়েন্ট নিয়ে ঢাকা ডায়নামাইটসকে টপকে টেবিলের শীর্ষে উঠেছে চিটাগং। দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে থাকা ঢাকা ও কুমিল্লা ভিক্টোরিন্সের পয়েন্ট সমান ১০। অষ্টম ম্যাচে চতুর্থ হারে পাঁচে আছে রাজশাহী।

বুধবার(আজ) বিপিএলের ২৭তম ম্যাচে মুখোমুখি হয় চিটাগং ভাইকিংস ও রাজশাহী কিংস। যেখানে টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন চিটাগং অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। এবারের আসরে দু’দলের এটিই প্রথম সাক্ষাৎ।
প্রথমে ব্যাট করতে নেমে তবে শুরুতেই হোঁচট খায় মেহেদী হাসান মিরাজের রাজশাহী। তৃতীয় ওভারে রবি ফ্রাইলিঙ্ককে সুইপ করার চেষ্টায় উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়ে সৌম্য ফেরেন ব্যক্তিগত ৩ রানে। পরের ওভারে খালেদ আহমেদকে উড়াতে গিয়ে বল আকাশে তুলতে গিয়ে মার্শাল আইয়ুব আউট হন ১ রান করে।

৮ রানে ২ উইকেট পড়ার পর রায়ান টেন ডেসকাটকে নিয়ে ৫৪ রানের জুটি গড়েন এ আসরের এখন পর্যন্ত একামাত্র সেঞ্চুরিয়ান লরি ইভান্স।৩১ বছর বয়সি এ ব্যাটসম্যান ৫৬ বলে ৮ চার ও ২ ছক্কায় করেন ৭৪ রান।২৮ রান করে আউট হন ডেসকাট। এরপর ৫ রান করে বিদায় নেন জাকির হাসান।

শেষ দিকে ক্রিশ্চিয়ান ঝঙ্কার ঝড় তোলেন। ২০ বলে তিনি করেন ৩৬ রান। সাত নম্বরে ব্যাট করতে নেমে মেহেদী হাসান মিরাজ ৪ বলে করেন ১০ রান। লরি ইভান্সের ঝড়ো ব্যাটিংয়ের ওপর ভর করে ১৫৭ রানের পুঁজি গড়ে তোলে রাজশাহী কিংস।

চার ওভারে ৩০ রানে ২ উইকেট নিয়ে চিটাগংয়ের সেরা বোলার খালেদ। ফ্রাইলিঙ্ক, আবু জায়েদ ও সানজামুল ইসলামের ঝুলিতে জমা পড়ে একটি করে উইকেট।

১৫৮ রানের লক্ষ্য তাড়ায় চিটাগংয়ের শুরুটা ভালো হয়নি।দলীয় ৬ রানে মিরাজের এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়ে ফেরেন ক্যামেরন ডেলপোর্ট।প্রাথমিক ধাক্কা কাটিয়ে ওঠার আগেই আরাফাত সানির বলে স্ট্যাম্পিং হয়ে ফেরেন ইয়াসির আলি। সেই জের না কাটতেই সানির স্পিন জালে ধরা পড়েন মোহাম্মদ শেহজাদ। ড্রেসিংরুমের পথ ধরার আগে ১৭ বলে ৫ চারে ২৫ রান করেন এ আফগান হিটার।

২৯ রানে দ্বিতীয় উইকেট এবং ৩০ রানে তৃতীয় উইকেট পড়ার পর সবাই ধরে নিয়েছিল এই ম্যাচে নিশ্চিত হারতে হচ্ছে চিটাগং ভাইকিংসকে। এরপর ৭১ রানের মাথায় চলে গিয়েছিল চতুর্থ উইকেটও।

কিন্তু মিডল অর্ডারে (পঞ্চম উইকেট জুটিতে) মুশফিকুর রহীম আর মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের অসাধারণ ব্যাটিংয়ের ওপর ভর করেই জয়ের ধারা অব্যাহত রাখলো মুশফিকুর রহীমের দল। মুশফিক অপরাজিত থাকেন ৬৪ রানে এবং মোসাদ্দেক অপরাজিত থাকেন ৪৩ রান করে। শুধু তাই নয়, ৭ ম্যাচ শেষে ১২ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে নিরঙ্কুশ অবস্থান ধরে রেখেছে চিটাগং ভাইকিংস।

LEAVE A REPLY