ক্রাইস্টচার্চ থেকে নিরাপদে দেশে ফিরেছেন টাইগাররা

ক্রাইস্টচার্চে দুটো মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় ক্রাইস্টচার্চ টেস্ট (তৃতীয় টেস্ট) বাতিল হওয়ার পর দেশে ফিরেছেন বাংলাদেশের টাইগাররা। শনিবার(১৬ মার্চ)রাত ১০টা ৪০ মিনিটে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইনসের একটি ফ্লাইটে ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায় তারা।

এ সময় বাংলাদেশ দলকে বিমান বন্দরে স্বাগত জানান বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল, বিসিবি পরিচালক জালাল ইউনুস। ক্রিকেটারদের স্বাগত জানাতে বিমান বন্দরের বাইরের সড়কে উপস্থিত হন হাজার হাজার মানুষ।

এর আগে বাংলাদেশ সময় শনিবার ভোর ৫টায় সিঙ্গাপুর এয়ারলাইনসযোগে বাংলাদেশের উদ্দেশ্যে নিউজিল্যান্ড ত্যাগ করেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সদস্যরা। ক্রিকেটার, কোচসহ দেশে ফিরেছেন মোট ১৯ জন। প্রধান কোচ স্টিভ রোডস দলের সঙ্গে এলেও পেস বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ, স্পিন বোলিং কোচ সুনীল যোশি, ফিল্ডিং কোচ রায়ান কুক ও ট্রেনার মারিও ভিল্লাভারায়ণ নিজ নিজ দেশে ফিরে গেছেন।

বিমানবন্দরে পৌঁছেই সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেন মাহমুমুদুল্লাহ রিয়াদ। তবে তার চোখে মুখে হয়ত সেই স্মৃতি তখনও ভেসে উঠছিল। রিয়াদ বলেন, ‘আমি জানিনা কীভাবে শুরু করবো শুধু এতটুকু বলতে চাই, আমরা খুব ভাগ্যবান যে আমরা এই মুহূর্তে এখানে আছি এবং আপনাদের সবার দোয়ায় দেশবাসীর দোয়ায়, বাবা-মা পরিবার পরিজন সবার দোয়ায় আমরা এখন এখানে আছি। আমি এটা বর্ণনা করতে পারবনা যে আমরা এখন কিসের মধ্যে আছি। এটা কারোই কাম্য না। আমি এবং আমার টিমের কেউই সারা রাত ঘুমাতে পারিনি। যখন রুমের মধ্যে ছিলাম তখন এতটুকুই মনে হচ্ছিল আমরা কতটুকু ভাগ্যবান। নিউজিল্যান্ডের মতো দেশে এমন ঘটনা ঘটেছে এটা খুবই অপ্রত্যাশিত। দেশবাসীকে ধন্যবাদ, আমাদের জন্য দোয়া করবেন যাতে এই মানসিক অবস্থা থেকে তাড়াতাড়ি বের হয়ে আসতে পারি। বিসিবিকে ধন্যবাদ আমাদের দ্রুত দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য।’

এছাড়া বিমান বন্দরেই সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। এ সময় তিনি বলেন, ‘এখন খেলা নিয়ে কোন চিন্তা নয়। আগামী কিছুদিন খেলাধুলা নিয়ে চিন্তা করতে আমি পুরোপুরি নিষেধ করে দিয়েছি। পরিবারের সঙ্গে সময় কাটিয়ে তারা যেন ফুরফুরে হতে পারে সে দিকে নজর দিতে বলে দিয়েছি।’

বিসিবি সভাপতি আরো বলেন, ‘ঘটনার পরপর, তখন থেকেই ক্রিকেটারদের সঙ্গে কথা বলেছি। আমরা সকলেই বুঝতে পারছিলাম যে, ওদের মধ্যে মানসিকভাবে কি যাচ্ছে। সে জায়গায় তখন থেকে বসেছিল, কখন তারা দেশে আসতে পারবে এবং কত তাড়াতাড়ি। সে জন্য তারা, একটু রিয়াদ যেটা বলেছে, তারা সারারাত ঘুমাতে পারেনি।’

পাপনের জানান, শুক্রবার থেকেই লম্বা জার্নি শুরু হয়েছে ক্রিকেটারদের। সব মিলিয়ে ২২ ঘণ্টা সফর করেছে টাইগাররা। এত লম্বা জার্নির কারণে ওরা সকলেই ক্লান্ত। মানসিকভাবেও তারা ভেঙে পড়েছে অনেকে।

পাপন বলেন, ‘আমরা সবাই ওদেরকে বলেছি, যাও বাসায় যাও। সবকিছু বাদ দিয়ে, ঠান্ডা মাথায়, নিজেদের মতো করে, যা ভালো লাগে সেভাবে কাটাও। সবকিছু ঠান্ডা হলে তারপর আমাদের সাথে যোগাযোগ করো। খেলাধুলা নিয়ে এই মূহুর্তে কোনো চিন্তা ভাবনা করবে না। পরিবারের সাথে সময় কাটাবে। আমরা আছি, আমাদের যদি কোনো সহযোগিতা লাগে কারো আমরা আছিই।’

শুক্রবার (১৫ মার্চ) নিউজিল্যান্ডে ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার পর বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার তৃতীয় টেস্ট বাতিল করা হয়। এর পরই বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের দ্রুত দেশে ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ নেয়া হয়।

বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসান পাপন তাৎক্ষণিক জানান, সরকারের উচ্চ পর্যায়ের সঙ্গে যোগাযোগ করে ক্রিকেটারদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করে দ্রুত দেশে ফেরিয়ে আনা হচ্ছে।

ক্রাইস্টচার্চের হ্যাগলি ওভালের আল নূর মসজিদে সন্ত্রাসী হামলায় ঝরে গেছে ৪৯টি তাজা প্রাণ। ওই ঘটনায় দুই বাংলাদেশিও নিহত হয়েছেন। শেষ টেস্টের প্রস্তুতি শেষে টাইগারদের একটা দল গিয়েছিলো স্টেডিয়াম সংলগ্ন আল নূর মসজিদে জুমার নামাজ আদায় করতে। মসজিদের সামনে টিম বাস থেকে নামতেই সামনে পার্ক করা একটি গাড়ি থেকে বের হয়ে একজন মহিলা বলছিলেন, ‘ওদিকে যেও না।’ এর মাঝেই তামিম, রিয়াদ, মুশফিকরা গুলির আওয়াজ পান।

ভীত সন্ত্রস্ত বাংলাদেশ দল দ্রুত সেখান থেকে পার্ক হয়ে সোজা চলে যায় স্টেডিয়ামে। এরপর পুলিশি পাহারায় যায় টিম হোটেলে। এভাবেই অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে যায় লাল সবুজের ক্রিকেট যোদ্ধারা।

LEAVE A REPLY