আজ উদ্বোধনী ম্যাচে স্বাগতিকদের মুখোমুখি প্রোটিয়রা

আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হয়ে গেছে গতকাল, এবার বল মাঠে গড়ানোর পালা।আজ(বৃহস্পতিবার) স্বাগতিক ইংল্যান্ড ও আসরের অন্যতম শক্তিশালী দল দক্ষিণ আফ্রিকা মধ্যকার উদ্বোধনী ম্যাচের মধ্যে দিয়ে শুরু হবে ক্রিকেট বিশ্বের এই মহা লড়াই।

উদ্বোধনী ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে লন্ডনের কেনিংটন ওভালে। ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে ৩টায়। বিশ্বকাপের অফিসিয়াল ব্রডকাস্টার স্টার স্পোর্টস নেটওয়ার্ক ছাড়াও দেশের তিন টেলিভিশন চ্যানেল বিটিভি, জিটিভি ও মাছরাঙার পর্দায় সরাসরি উপভোগ করা যাবে ম্যাচটি।

ইংল্যান্ডের সব থেকে বড় শক্তি দলের ব্যাটিং লাইনআপ।জেসন রয়, জনি বেয়ারস্টো, জস বাটলার, জো রুট, মঈন আলী, বেন স্টোকসের মতো খেলোয়াড়রা ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলছেন নিয়মিত। প্রায়ই ৩৫০-৪০০ রান করছেন। সঙ্গে মার্ক উড, জফরা আর্চার, ক্রিস ওকস ও আদিল রশিদরা শিখে গেছেন ৫০ ওভারের ক্রিকেটে বোলিংটা কতটা কার্যকরী হতে পারে।

বলা হয়, ক্রিকেট খেলাটার জন্ম ইংল্যান্ডে। খেলাটাকে জন্ম দিলেও কখনো ওয়ানডে বিশ্বকাপ জেতার সৌভাগ্য হয়ে উঠেনি ইংলিশদের। একবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জিতলেও ৪৫ বছর ধরে আসল বিশ্বকাপ জেতার আক্ষেপ বুকে নিয়ে ঘুরছে তারা। পঞ্চমবারের মতো আয়োজক দল হিসেবে আজ মাঠে নামবে ইংলিশরা।এর আগে চারবার বিশ্বকাপ আয়োজন করেও জেতা হয়নি।বিশ্বকাপ জয়ের খুব কাছে গিয়েও ফিরতে হয়েছে। এবার কি সেই আক্ষেপ ঘুচবে?

অন্যদিকে, চারবার সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। এখনও পর্যন্ত বিশ্বকাপের মুকুট পড়া হয় নি তাদের। এই বিশ্বকাপে দলগত পারফরম্যান্সের উপর নির্ভর করে মাঠে নামবে প্রোটিয়ারা।

তবে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে আজ খেলবেন না পেসার ডেল স্টেইন। কাঁধের চোটের কারণে একাদশ থেকে ছিটকে পড়েন এই পেসার। কিন্তু তার অনুপস্থিতিতে মূল পেসাররে ভূমিকায় থাকবেন কাগিসো রাবাদা ও লুঙ্গি এনগিদি। এছাড়া ক্রিস মরিস, ডোয়াইন প্রিটোরিয়াসরাও ইংলিশ ব্যাটসম্যানদের বিপক্ষে লড়াই করবেন।

উদ্বোধনী ম্যাচে উইকেট থেকে সুবিধা পাবে প্রোটিয়া বোলাররা এমনটা মনে করছেন না দক্ষিণ আফ্রিকার কোচ ওটিস গিবসন। তার মতে, বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ফ্লাট ও ফাস্ট উইকেটে তাদের বোলাররা সুবিধা পাবে।

এ ব্যাপারে গিবসন বলেন, আমরা আজ (গতকাল) পিচ দেখেছি। কিছুটা ঘাস আছে পিচে। আমার মনে হয় পরবর্তী দুদিনে এগুলো বেশ পরিবর্তন হবে। এই মুহূর্তে আমাদের দলে তিনজন অলরাউন্ডার রয়েছে (ক্রিস মরিস, আন্দিলে ফেলুকওয়ে ও ডোয়াইনি প্রিটোরিয়াস)। আমাদের শামসিও রয়েছে। কালকে যখন আমরা আবার এখানে আসব, তখন অবস্থা দেখে সিদ্ধান্ত নিব।

প্রোটিয়া কোচ বলেন, আমাদের ভালো বোলিং আক্রমণ রয়েছে। সেটা নিয়ে আমরা বেশ খুশি। পিচে যদি কিছুটা পেস ধরে এবং বাউন্স পাওয়া যায় তাহলে আমরা সুবিধা পাব। দক্ষিণ আফ্রিকায় এমন উইকেটেই খেলে অভ্যস্ত আমরা। সুতরাং এটা আমাদের ব্যাটসম্যানদের জন্য খুব একটা সমস্যা হবে না। আর বোলারদের জন্য এমন কন্ডিশন হতে পারে দারুণ অভ্যর্থনার।

একনজরে দুই দলের সম্ভাব্য একাদশ-

ইংল্যান্ড: জেসন রয়, জনি বেয়ারস্টো, জো রুট, ইয়ন মরগান (অধিনায়ক), জস বাটলার (উইকেটরক্ষক), বেন স্টোকষ, মঈন আলী, ক্রিস ওকস, আদিল রশিদ, জফরা আর্চার, লিয়াম প্লাঙ্কেট/মার্ক উড।

দক্ষিণ আফ্রিকা: হাশিম আমলা, কুইন্টন ডি কক (উইকেটরক্ষক), ফ্যাফ ডু প্লেসিস, রাসি ভ্যান ডার ডুসেন, ডেভিড মিলার, জেপি ডুমিনি, অ্যান্ডিলে ফেলুকায়ো, ক্রিস মরিস, কাগিসো রাবাদা, লুঙ্গি এনগিডি, ইমরান তাহির।

যেসব চ্যানেলে দেখতে পারবেন বিশ্বকাপ খেলা
*বাংলাদেশের চ্যানেল: ক্রিকেটের বৈশ্বিক টুর্নামেন্টের প্রতিটি ম্যাচ সরাসরি সম্প্রচার করবে বাংলাদেশের গাজী টিভি (জিটিভি), মাছরাঙা ও বিটিভি।
*ভারতের চ্যানেল: ভারতে সরাসরি খেলা দেখা যাবে স্টার স্পোর্টস, ডিডি স্পোর্টস ও ডিডি ন্যাশনালে। বিশ্বের অন্যান্য দেশের ক্রিকেটপ্রেমীরাও সরাসরি খেলা উপভোগ করতে পারবেন।

*পাকিস্তানের চ্যানেল : পাকিস্তানে পিটিভি স্পোর্টস, টেন স্পোর্টস ও সনি লাইভ, অস্ট্রেলিয়াতে ফক্স স্পোর্টস, যুক্তরাজ্যে স্কাই স্পোর্টস, যুক্তরাষ্ট্রে উইলো টিভি, দক্ষিণ আফ্রিকায় সুপার স্পোর্টস এবং নিউজিল্যান্ডে স্কাই স্পোর্টস প্রচার করবে বিশ্বকাপের ম্যাচগুলো।

*মধ্যপ্রাচ্য ও উত্তর আফ্রিকা চ্যানেল : মধ্যপ্রাচ্য ও উত্তর আফ্রিকার অধিবাসীরা ওএসএন স্পোর্টস ক্রিকেট এইচডি চ্যানেলে খেলাগুলো প্রত্যক্ষ করতে পারবেন। ক্যানাডায় এটিএন (এশিয়ান টেলিভিশন নেটওয়ার্ক), শ্রীলংকায় এসএলআরসি (চ্যানেল আই), ক্যারিবিয়ান দীপপুঞ্জে ইএসপিএন ক্যারিবিয়ান, আফগানিস্তানে মোবি টিভিতে সরাসরি খেলা দেখা যাবে।

হংকংয়ে স্টার ক্রিকেট, নাউ টিভি অ্যাপ, মালয়শিয়াতে স্টার ক্রিকেট, অ্যাস্ট্রো গো, সিঙ্গাপুরে স্টার ক্রিকেট, স্টার হাব গো, সিংগটেল টিভি, ফিজিতে ফিজি ব্রডকাস্টিং কর্পোরেশন (এফ বি সি টিভি), চায়নাতে ফক্স নেটওয়ার্ক গ্রুপে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ আসরের খেলা দেখা যাবে। ইউরোপ ও জাপানেও খেলা দেখা যাবে। এজন্য চোখ রাখতে হবে আইসিসির ফেসবুক পেজে।

*অনলাইন : এছাড়া অনলাইনে লাইভ স্ট্রিমিং দেখতে পারবেন বিশ্বের আনাচে কানাচে থাকা ক্রিকেট রোমান্টিকরা। ভারতে অনলাইনে হটস্টারে, জাপানে আইসিসির ফেসবুক পেজে, বাংলাদেশে র‍্যাবিটহোল অ্যাপে, নিউজিল্যান্ডে ফ্যান পাসে, যুক্তরাজ্যে স্কাই গোতে, অস্ট্রেলিয়া ও জার্মানিতে ডাজেডএনে সরাসরি খেলা দেখা যাবে।

পাশাপাশি অস্ট্রেলিয়াতে ফক্সটেল স্পোর্টসে, দক্ষিণ আফ্রিকায় সুপার স্পোর্টসে, কানাডা ও ইউরোপে ইউপ টিভিতে, হংকংয়ে নাউ টিভিতে, দক্ষিণ আমেরিকাতে ইএসপিএন ও উইলো টিভি এবং মধ্যপ্রাচ্যে ওএসএন প্লেতে বিশ্বকাপের খেলা দেখতে পারবেন।

LEAVE A REPLY