চলতি বছর জুলাইতে বাংলাদেশের সাথে তিনটি ওয়ানডে,দুইটি টেস্ট ও ১টি টি-টোয়েন্টি খেলতে বাংলাদেশ সফরে আসার কথা ছিলো পাকিস্তানের। তবে সেটি আর হচ্ছেনা। পাকিস্তান জুলাইয়ে বাংলাদেশ সফর বাতিল করেছে।দুই দেশের বোর্ডের সম্মতিতেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে এমন কথা জানিয়েছেন পিসিবি প্রধান শাহরিয়ার খান।

 

তবে দুবাইতে অনুষ্ঠিত হয়ে যাওয়া আইসিসির বোর্ড সভা শেষে মত পাল্টে গেল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি)। পিসিবি প্রধান শাহরিয়ার খান বলেন,

”আমরা(পিসিবি) বাংলাদেশকে পাকিস্তানে আসার জন্যে কথা বলেছিলাম। পাকিস্তান বাংলাদেশে দুইবার সফর করেছে তবে বাংলাদেশ পাকিস্তানে আসেনি। তাই আমরা বোধ করছি, পাকিস্তান টানা তৃতীয়বারের মতো বাংলাদেশ সফর করতে পারেনা। তাই আমরা এই সফর বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। সামনের বছর বা তারও পরে বাংলাদেশে যাবার সুযোগ আছে কিনা সেটা নিয়ে আমরা ভাববো”

বাংলাদেশ দল শেষবার পাকিস্তান সফর করেছিল ২০০৮ সালে। সেবার পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলেছে বাংলাদেশ ও পাকিস্তান দল।

এর পর ২০১১-১২ মৌসুম একবার ও ২০১৫ সালে পাকিস্তান দল বাংলাদেশ সফরে এসেছে। পাক বোর্ডের প্রত্যাশা ছিল এর মাঝে একবার বাংলাদেশ জাতীয় দল পাকিস্তানের মাটিতে খেলে আসবে।

কিছুদিন আগে শেষ এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের মিটিংয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড পাকিস্তানের হাই পারফর্মেন্স দল পাঠাতে রাজি হয়। মিটিংয়ে আবার পাকিস্তানের বাংলাদেশ সফরও পাকাপোক্ত হয়। কিন্তু আইসিসি মিটিং শেষে আবার মত বদলে গেল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের।

LEAVE A REPLY