আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের-আইসিসির  ফিউচার ট্যুর প্রোগ্রাম অনুযায়ী চলতি বছরের জুলাই-আগস্টে বাংলাদেশ সফরে আসার কথা পাকিস্তান দলের।

 

কিন্তু গতকাল পাক বোর্ড সভাপতি শাহরিয়ার খান সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, বাংলাদেশে দুইবার সফর করলেও বাংলাদেশ দল পাকিস্তানে  সফর না করায়। সূচি অনুযায়ী জুলাই-আগস্টে বাংলাদেশ সফরে আসছে না পাকিস্তান।

তবে আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী পাকিস্তান দল বাংলাদেশ সফরে আসতে বাধ্য। তাই পাকিস্তানের এমন সিদ্ধান্ত অবাক হয়েছে বিসিবি কর্তারা। মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস জানান,

‘আমরা সত্যিই বিস্মিত। আমরা এক মাস আগেও জানতাম তারা এখানে সফর করবে। ২০১৫ সালে পর আমাদের সঙ্গে চুক্তি হয়েছিল যে পরের দুটি সিরিজ তারা আমাদের এখানে খেলবে। তখন একটা আর্থিক ইস্যু ছিল। বিষয়টি তখন নিষ্পত্তি করা হয়েছিল। তারা বলেছিল ২০১৭ সাল পর্যন্ত ঢাকাতেই খেলবে।’

নিয়ম অনুযায়ী সফরটি বাংলাদেশের প্রাপ্য… এমন দাবী করে জালাল ইউনুস। ‘দুবাইয়ে আইসিসির সভায় পাকিস্তানের সভাপতি ও আমাদের সভাপতির কোন একটা সময়ে সফর নিয়ে আলাপ আলোচনা হয়েছে।

তারা চাচ্ছে, বাংলাদেশ দল কমপক্ষে দুটি টি-টোয়েন্টি পাকিস্তানে গিয়ে খেলুক। বাকিটা এখানে কন্টিনিউ করবে। কিন্তু আমরা চাচ্ছি না ওখানে গিয়ে খেলতে। এফটিপি অনুযায়ী এটা বাংলাদেশের সিরিজ। ওদের সফর আমাদের প্রাপ্য। সম্পুর্ণ সিরিজটা এখানেই খেলতে চাই।’

তবে পিসিবি প্রধানের মন্তব্যে এখনি সিদ্ধান্তে আসতে চাচ্ছে না বিসিবি। পাক বোর্ডের কাছ থেকে এখনো আনুষ্ঠানিক ভাবে কিছু জানানো হয় নি। চাইলে পিসিবির বিরুদ্ধে ব্যবস্থাও নিতে পারবে বাংলাদেশ বোর্ড।

জালাল ইউনুস বলেন, ‘আমরা এখন পর্যন্ত তাদের কাছ থেকে কোন কিছু পাইনি। এটা মিডিয়ার মাধ্যমে জানতে পেরেছি। আমরা এখনো অফিসিয়ালি কনফার্মড না। জানালে তখন ভাবব কি করা যায়। এখন পর্যন্ত জানি, তারা এখানেই আসবে। আমরা আমাদের সূচিতেই থাকব। আমাদের প্রস্তাবিত সূচি তাদের কাছে দিয়ে দিব।

LEAVE A REPLY