দ্বিতীয় বিভাগ ক্রিকেট লিগে চার বলে ৯২ রানের ঘটনায় দেরিতে হলেও অবশেষে নড়েচড়ে বসলো বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। লালমাটিয়া ও ফেয়ার ফাইটার্সকে স্ক্র্যাচডের মধ্যকার ম্যাচটির চার বলে ৯২ রান দেয়ার ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত শেষে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিই দিলো বিসিবি। যে দুই ক্লাবের খেলায় ঘটেছিল অমন অনাকাঙ্ক্ষিত ও নজিরবিহীন ঘটনা, সেই দুই ক্লাব লালমাটিয়া ও ফেয়ার ফাইটার্সকে স্ক্র্যাচড কে আজীবন নিষিদ্ধ করেছে বিসিবি। আর দুই খেলোয়াড় সুজন মাহমুদ ও তাসনিমকেও ১০ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

 

মঙ্গলবার মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শৃঙ্খলা কমিটির চেয়ারম্যান ও তদন্ত কমিটির অন্যতম সদস্য শেখ সোহেল বলেন, `দেশের ক্রিকেটকে যারা ধ্বংস করতে চায় তাদের আমরা দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিয়েছি। দুই ক্লাব লালমাটিয়া ও ফেয়ার ফাইটার্স্কে আজীবন নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এছাড়াও দুই বোলার সুজন মাহমুদ ও তাসনিমকে ১০ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে। পাশাপাশি ওই দুই ম্যাচে যে সকল আম্পায়াররা ম্যাচ পরিচালনা করেছেন তাদেরও ৬ মাসের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে।`

 

এদিকে লালমাটিয়া ক্রিকেট সেক্রেটারি আদনান রহমান দিপনকে পাঁচ বছরের জন্য ক্রিকেটীয় কর্মকাণ্ড থেকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। শুধু তাই নয় দুই ক্লাবের অধিনায়ক ও কোচদেরকেও ৫ বছরের নিষিদ্ধ করা হয়েছে বলে জানান সোহেল, `এছাড়াও লালমাটিয়া ক্লাবের সংগঠক দিপনকে পাঁচ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এমনকি দুই ক্লাবের কোচ ও অধিনায়ককেও পাঁচ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে।`

LEAVE A REPLY