খুলনাকে হারিয়ে জয়ে ফিরলো মাশরাফিরা

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ছষ্ঠ আসরের চতুর্থ ম্যাচে এবং নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে মাহমুদউল্লাহর খুলনা টাইটানসকে হারিয়ে জয়ের দেখা পেলো মাশরাফি বিন মর্তুজার রংপুর রাইডার্স।

রবিবার মীরপুর শের-ই-বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বিপিএলের দ্বিতীয় দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে রংপুর বনাম খুলনার মধ্যকার খেলায় টসে হেরে আগে ব্যাট করে খুলনাকে ১৭০ রানের বিশাল টার্গেট দেয় বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। কিন্তু বিশাল লক্ষ্য নিয়ে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৫৬ রান করে খুলনা। ফলে ৮ রানে জয় পায় মাশরাফির রংপুর।

মাশরাফিরা নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচের জয়ের দেখা পেলেও নিজেদের প্রথম ম্যাচে হার দিয়ে বিপিএল মিশন শুরু করল মাহমুদউল্লাহরা।

খুলনাকে দেওয়া রংপুরের ১৭০ রানের টার্গেটে শেষ ৬ বলে জয়ের জন্য খুলনার দরকার ছিল ২০ রান। ফরহাদ রেজার করা ওভারে ১১ রানের বেশি নিতে পারেনি খুলনার দুই ব্যাটসম্যান জহুরুল ইসলাম ও ব্রাথওয়েট। ১৬১/৫ রানে থামে খুলনার ইনিংস।

টস হেরে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নামা রংপুরের শুরুটা ভালো হয়নি। দলীয় ১৮ রানে ওপেনার মেহেদী মারুফের ব্যক্তিগত ৫ রানের সময় উইকেট হারায়। হেলস ও মোহাম্মদ মিঠুনও নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি। হেলস ১৫ ও মিঠুন ১৯ রান করেন। ৬৫ রানে ভিতরেই ৩ উইকেট হারায় রংপুর। দলের এই বিপর্যয়ে দলের হাল ধরেন রাইলি রুশো ও রবি বোপারা।


এই জুটি চতুর্থ উইকেটে ১০৪ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়ে দলকে নিরাপদ স্থানে পৌঁছে দেন। তাদের কল্যাণে ৩ উইকেটে ১৬৯ রানের চ্যালেঞ্জিস্কোর গড়তে সক্ষম হয় রংপুর। দলের জয়ে বাকি কাজ সম্পূর্ণ করেন বোলাররা।দলের জয়ে ব্যাট হাতে ৫২ বলে ৭৬ রান করেন রাইলি রুশো। রুশোর ইনিংসে ছিল আটটি চার ও দুইটি ছক্কা। তাকে যোগ্য সঙ্গ দেওয়া রবি বোপারা ২৯ বলে তিনটি চার ও একটি ছক্কার সাহায্যে ৪০ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন। খুলনার হয়ে আলি খান, জহির খান ও কার্লোস ব্র্যাথওয়েট একটি করে উইকেট পান।

জবাবে উদ্বোধনীতে ৯০ রানের জুটি গড়ে খুলনা টাইটানসকে জয়ের স্বপ্ন দেখান পল স্টারলিং ও জুনায়েদ সিদ্দিকী। এরপর ৫০ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে ম্যাচ থেকে কার্যত ছিটকে যায় খুলনা।

শেষ দিকে জয়ের জন্য খুলনার প্রয়োজ ছিল ১৮ বলে ৩৫ রান। হাতে ছিল ৭ উইকেট। ১৮তম ওভারে মাত্র ৫ রান দিয় মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের উইকেট তুলে নেন ফরহাদ রেজা।

ঠিক পরের ওভারের প্রথম বলে ফেরেন উইকেটে সেট ব্যাটসম্যান আরিফুল হক। তিন বলে দুই উইকেট হারিয়ে চাপের মধ্যে পড়ে যাওয়া খুলনা, এরপর আর সেভাবে লড়াই করতে পারেনি। শেষ বলে জয়ের জন্য খুলনার ১০ রান প্রয়োজন হলেও রংপুরের তরুন বলার ফরহাদ রেজার বলে ১ রানের বেশি আদায় করতে পারেননি জহুরুল ইসলাম। ফলে ৮ রানে হারতে হয় খুলনাকে।

১৯তম ওভারে ওয়াইডের ‘হ্যাটট্রিক’ করেন রংপুরের অন্যতম বলার শফিউল ইসলাম। তখন উইকেটে ছিলেন জহুরুল ইসলাম। এছাড়া একটি নিশ্চিত রান আউটও মিস করেছেন শফিউল।রংপুরের হয়ে শফিউল ২ উইকেট পান। মাশরাফি, ফরহাদ ও হাওয়েলের শিকার একটি করে উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

রংপুর রাইডার্স: ২০ ওভারে ১৬৯/৩ (রুশো ৭৬*, বোপারা ৪০*)।

খুলনা টাইটানস: ২০ ওভারে ১৬১/৫(স্টারলিং ৬১, জুনায়েদ ৩৩, মাহমুদউল্লাহ ২৪)।

ফল: রংপুর ৮ রানে জয়ী।

ম্যাচসেরা: রাইলি রুশো (রংপুর রাইডার্স)

দুই দলের একাদশ

খুলনা টাইটানস: মাহমুদউল্লাহ(অধিনায়ক), পল স্টারলিং, কার্লোস ব্রাথওয়েট, জুনায়েদ সিদ্দিকী, জহুরুল ইসলাম অমি, আরিফুল হক, নাজমুল হোসেন শান্ত, তাইজুল ইসলাম, ডেভিড ওয়াইজ, আলী খান, শরিফুল ইসলাম ও জহির খান।

রংপুর রাইডার্স: মাশরাফি বিন মুর্তজা(অধিনায়ক), রাইলি রুশো, মেহেদি মারুফ, মোহাম্মদ মিঠুন, রবি বোপারা, অ্যালেক্স হেলস, বেনি হাওয়েল, ফরহাদ রেজা, সোহাগ গাজী ও নাজমুল ইসলাম অপু।

LEAVE A REPLY